শুক্রবার,৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং,২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,
  • প্রচ্ছদ » জাতীয় » রিক্রুটিং লাইসেন্স শ্রেণিবিন্যাসের প্রতিবাদে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সামনে মানববন্ধন



রিক্রুটিং লাইসেন্স শ্রেণিবিন্যাসের প্রতিবাদে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সামনে মানববন্ধন


প্রবাস সংবাদ :
১৩.০৩.২০২০

রিক্রুটিং এজেন্সির লাইসেন্সগুলোকে এ, বি, সি ও ডি ক্যাটাগরিতে শ্রেণিবিন্যাসের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে রিক্রুটিং এজেন্সি ঐক্য পরিষদ।

বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তারা রিক্রুটিং লাইসেন্সকে শ্রেণিবিন্যাস করার প্রতিবাদ জানান এবং এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহ্বান জানান।

রিক্রুটিং এজেন্সি ঐক্য পরিষদের সভাপতি টিপু সুলতান বলেন, ২০১৩ সালে এই আইন হলেও ৭ বছর পর হঠাৎ করে এখনই কার্যকর করা জরুরি হয়ে উঠল কেন? যারা মালয়েশিয়া সিন্ডিকেট করেছে তারা এই নতুন শ্রেনীবিন্যাস সিন্ডিকেট কার্যকর করে প্রথম শ্রেণিতে উন্নিত হবে, যার ফলে ৯৮ ভাগ রিক্রুটিং এজেন্সি সর্বনিম্ন গ্রেডে চলে যাবে। তাই আমাদের উদাত্ত আহবান এই শ্রেণিবিন্যাস যে কোনোভাবেই হোক বন্ধ করতে হবে।

রিক্রুটিং এজেন্সি ঐক্য পরিষদের মহাসচিব আরিফুর রহমান বলেন,  সকল রিক্রুটিং এজেন্সির জন্য সমানভাবে সব বাজার উন্নত না করে দিয়ে লাইসেন্স এর শ্রেণিবিন্যাস করা একটা উপহাসের শামিল। সবার জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড সমান না দিয়ে এই শ্রেণিবিন্যাস করা অন্যায় এবং অযৌক্তিক।

বক্তারা বলেন, একটা শ্রেণি লাখ লাখ টাকার মালিক হচ্ছে, আর অনেকে কিছুই পাচ্ছেনা তা হতে পারে না। মালয়েশিয়া ১০ সিন্ডিকেটে যারা ছিলেন এর বাইরে বিভিন্ন দেশে যারা অতীতে সিন্ডিকেট করেছিলেন এবং যারা রিক্রুটমেন্ট না করে শুধুমাত্র প্রসেসিং করে থাকে তারাই এই রিক্রুটিং লাইসেন্সের এবিসিডি শ্রেণিবিন্যাসে লাভবান হবেন, বাকি ৯৮ ভাগই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সিন্ডিকেটের কারণে যারা মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে কর্মী প্রেরণের সুযোগ পাননি তারা কিভাবে বিভিন্ন জেলায় জেলায় শাখা অফিস করবে? তারা কিভাবে ট্রেনিং সেন্টার গড়ে তুলবে?

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন

শেখ ইকবাল, আহম্মেদ উল্লাহ বাচ্চু, লায়ন আলহাজ মো: সাইফুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, এ এন এম লুৎফর রহমান জুয়েল, ইনাম আব্দুলাহ মহসিন, সাইমন মাহমুদ, মো: ফিরোজ উদ্দিন, মো: মনিরুজ্জামান সজল প্রমূখ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি