শুক্রবার,৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং,২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,



সৌদি আরবে সবধরনের সামাজিক অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ


প্রবাস সংবাদ :
১৩.০৩.২০২০

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ইতোমধ্যে বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছে ৪ হাজার ৯৭৩ জন ও আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৮৫ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছে ৬৯ হাজার ১৪৬ জন। সৌদিতেই আক্রান্ত হয়েছে ২০ জন, তবে এখনো পর্যন্ত কেউ মারা যায়নি।

জানা গেছে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবে প্রায় ২০ লাখের বেশি প্রবাসী বাংলাদেশিী রয়েছে। আর এসব প্রবাসীরা তাদের নিজস্ব সংস্কৃতি সারা বিশ্বকে জানাতে মিলনমেলা, অভিষেক, বছরপূর্তি, পিঠা উৎসব, সংবর্ধনা, বর্ষবরণসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান করে থাকে। এর মাধ্যমে সৌর্হাদ্য, সম্প্রীতির মেলবন্ধন, ইতিহাস-ঐতিহ্য, সংস্কৃতি আর সাহিত্যের কথা জানতে পারেন বর্হিঃবিশ্বের মানুষেরা।

করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে সৌদি সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। দেশটিতে বৃহস্পতিবার থেকে কমিউনিটি সেন্টারে সামাজিক কাজসহ সবধরনের কার্যক্রম নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সৌদি সরকার। এ ছাড়া দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সন্দেহজনকদের শনাক্ত, রোগী শনাক্তে ডায়াগনসিস ও আক্রান্তদের চিকিৎসায় বেশ কিছু নতুন উদ্যোগ নিয়েছে।

সবধরণের অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ ও শক্তভাবে মনিটরিং করার কথা জানিয়েছে দেশটির সরকার। উল্লেখ্য ইতোপূর্বে দেশটিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সিনেমা হল, প্রদর্শনী ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত দেশটির সব বিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয়সহ সবরকমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে, ‘প্রতিরোধ এবং সতর্কতামূলক’ পদক্ষেপ হিসেবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ মোতাবেক এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, যাতে ছাত্র ও কর্মকর্তাদের এই ভাইরাসে আক্রান্তের হাত থেকে রক্ষা করা যায়। পাবলিক ও প্রাইভেট, কারিগরি ও ভোকেশনালসহ সবরকমের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এই নির্দেশনার আওতায় থাকবে।

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হলেও দেশটিতে এখন পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে এসেছে। চীনে তিন হাজার ৩ হাজার ১৬৯ জনের প্রাণ কেড়ে নেয়া এই ভাইরাস এখন বিশ্বের ১২৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা প্রাদুর্ভাবকে বিশ্ব মহামারি হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে।

চীনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলেও ভয়াবহ প্রকোপ শুরু হয়েছে এখন ইতালিতে। ইউরোপের এই দেশটি করোনা সামলাতে রীতিমতো হিমশিত খাচ্ছে। চীনের পর করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইতালিতে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি