বুধবার,২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং,১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,



পর্তুগালে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন


প্রবাস সংবাদ :
১২.০৮.২০১৯

মো: রাসেল আহম্মেদ, (লিসবন পর্তুগাল) :

যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাব গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বিগত বছরের ন্যায় এবারেও রবিবার স্থানীয় সময় পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করেছে পর্তুগাল প্রবাসী হাজারো বাংলাদেশী সহ বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশের ধর্মপ্রাণ মানুষজন। ঈদের নামাজের জামাত নিয়ে উৎসব মুখর এখন পর্তুগালের রাজধানী শহর লিসবন, বানিজ্যিক নগরী পোর্তো এবং পর্যটন নগরী আলগর্ভ সহ বিভিন্ন শহর।

মূলত ঈদকে কেন্দ্র করে নামাজে যে গণজমায়েত হয়, তা প্রবাসি বাংলাদেশিদের মিলন মেলায় পরিণত হয়। তাছাড়া লিসবনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা রুয়া দো বেনফোরমোযো তে সমগ্র পর্তুগাল থেকে মানুষজন এসে জড় হয়। পাশের পার্কে এক সাথে নামাজ আদায় করে এবং নামাজ শেষে কুলাকুলি, কুশল বিনিময়, বাঙালিয়ানা পোশাকে আনন্দ উৎসবে মাতোয়ারা থাকে সারাদিন।

পর্তুগালের প্রবাসী বাংলাদেশীদের বৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় লিসবনের মাতৃম মনিজ পার্কে সকাল ৮.০০ টায়। বায়তুল মোকারম বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার ও মাতৃম মনিজ জামে মসজিদের যৌথ পরিচালনায় ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকারম বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টারের প্রধান খতিব মাওলানা আবু সাইদ। নামাজ শেষে পর্তুগালে অবস্থান রত মুসলিম সহ বিশ্বের সকল মুসলিম উম্মাহ শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।

ঈদের জামাতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মিশন লিসবন পর্তুগালের মাননীয় রাষ্ট্রদূত জনাব রুহুল আলম সিদ্দিক। নামাজ শেষে তিনি সকলকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছন ও সকলের সাথে কৌশল বিনিময় করেছেন। প্রায় ছয় হাজার লোকের সমাগমে ইউরোপের অন্যতম বৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠানের জন্য আয়োজক কমিটি, লিসবন সিটি করপোরেশন, স্থানীয় জোন্তা, পুলিশ প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মাননীয় রাষ্ট্রদূত।

এছাড়াও সকাল ৯ টায় বায়তুল মোকারম বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার ও মাতৃম মনিজ জামে মসজিদে পৃথক দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া লিসবনের সেন্টার মসজিদে সকাল ১০ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া ওডিভিলাস, পোর্তো সহ বিভিন্ন শহরে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ইউরোপের দেশ গুলোতে সরাসরি খোলা ময়দানে কোরবানি অনুমতি দেয় না। তাই প্রবাসী বাংলাদেশী সহ মুসলিম কমিউনিটি মানুষজন স্থানীয় খামারে গিয়ে ইসলামিক রীতি অনুযায়ী পশু জবাই দেয় এবং নিজ দায়িত্বে তা সংগ্রহ করে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি