শুক্রবার,৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং,২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ,



‘লিবিয়া উপকূল থেকে ৬২ অভিবাসীর মৃতদেহ উদ্ধার’


প্রবাস সংবাদ :
২৮.০৭.২০১৯

লিবিয়া উপকূলের কাছে গত বৃহস্পতিবার অভিবাসনপ্রত্যাশীদের নিয়ে ডুবে যাওয়া একটি নৌকার ৬২ যাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছেন রেড ক্রিসেন্টের উদ্ধারকারীরা। গত শুক্রবার লিবিয়া রেড ক্রিসেন্টের প্রধান আব্দেল মোনেম আবু সাবাইহ এ কথা জানান। এদিকে ভূমধ্যসাগরে ওই নৌকাডুবির ঘটনাকে এ বছরের সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা বলে অভিহিত করেছেন জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার প্রধান ফিলিপ্পো গ্রান্ডি।

আবু সাবাইহ বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে এখন পর্যন্ত আমাদের কর্মীরা সমুদ্র থেকে ৬২ অভিবাসীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘এখনো উপকূলের কাছে অনেক মানুষের মৃতদেহ ভাসতে দেখা গেছে। তবে তাদের সংখ্যা কত সে বিষয়ে এই মুহূর্তে নিশ্চিত করে কিছু বলা সম্ভব নয়।’

এদিকে লিবিয়া উপকূলীয় শহর খোমসের মিউনিসিপ্যালিটির একটি সূত্র জানায়, ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার হওয়া এসব মৃতদেহ দাফনের জন্য জায়গা না পাওয়া পর্যন্ত তা সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার রাজধানী ত্রিপোলি থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরের শহর খোমসের উপকূলীয় এলাকায় অভিবাসনপ্রত্যাশী বোঝাই একটি নৌকা ডুবে যায় বলে জানায় বিভিন্ন সহায়তা সংস্থা। পরে সমুদ্রে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ১৪৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করে লিবিয়ার কোস্ট গার্ড ও জেলেরা। সেই সময় অনেক মানুষের মৃতদেহ পানিতে ভাসছিল বলেও জানায় তারা। দাতব্য সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস (এমএসএফ) জানায়, মোট ৪০০ জনকে নিয়ে তিনটি নৌকা একসঙ্গে রওনা হয়েছিল।

‘ভূমধ্যসাগর হয়ে ইউরোপে পাড়ি জমাতে গিয়ে প্রতিবছর অসংখ্য মানুষের মৃত্যু হয়। তেমনি এক ঘটনায় কয়েক সপ্তাহ আগে তিউনিসিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ৬৮ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী মারা যায়।’ সূত্র : এএফপি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি